আসরের নামাজের সময়

আসরের নামাজের সময় কবে? আজকের আসরের নামাজের সময় নিচে তুলে ধরা হলো।

আসরের নামাজের ওয়াক্ত শুরু
🔆  4:41 pm

প্রত্যেক জেলার আজকের নামাজের সময়সূচি

আসরের নামাজ কয় রাকাত

আসরের নামাজ সর্বমোট ৮ রাকাত। আসরের নামাজের মধ্যে সুন্নত সর্বমোট ৪ রাকাত এবং ফরজ নামাজ হিসেবে সর্বমোট ৪ রাকাত বরাদ্দ রয়েছে।

আপনি যদি আসরের নামাজ আদায় করেন তাহলে, বাধ্যতা মূলকভাবে চার রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করে নিতে হবে। তবে, কখনো হেলাফেলা করে ৪ রাকাত সুন্নত নামাজ বাদ দেয়া যাবে না।

কোন কারণে আপনি যদি ফরয নামাযের পূর্বে সুন্নত চার রাকাত নামাজ আদায় করতে অক্ষম হন। তাহলে পরবর্তী সময়ে চার রাকাত সুন্নত নামাজ আদায় করে নিতে পারেন।

ফরজ নামাজ আদায় করার পরে ৪ রাকাআত সুন্নত নামাজ আদায় করে নিতে পারেন।

আসরের নামাজ পড়ার নিয়ম

অন্যান্য নামাজ যেভাবে আদায় করেন, ঠিক এরকমভাবে আসরের নামাজ আদায় করে নিতে হবে। এক্ষেত্রে প্রথমত চার রাকাত সুন্নত নামাজ আদায় করে নিতে হবে এবং পরবর্তীতে চার রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করে নিতে হবে।

আসরের নামাজের সময় নির্ধারণ

যোহর নামাজের পর অর্থাৎ মধ্যাহ্ন পেরিয়ে সূর্য যখন পশ্চিম দিগন্ত রেখা থেকে বেশ কিছুটা উপরে অবস্থান করে এবং সূর্যের উজ্জ্বলতা তেজ বিরাজমান থাকে,সেই সময় থেকে সূর্যের সোনালী তামাটে বর্ণ মিটে গিয়ে রক্তিম বর্ণ ধারণ করার পূর্বেই নামাজ আদায় করে নেয়া ভাল।

সে সময় সূর্য দিগন্ত রেখা থেকে এতটা উপরে থাকা উচিত যে,জানালা গলে ঘরের মাঝে ছড়িয়ে পড়া সূর্যকিরণ মিটে গিয়ে যেন ছায়া ঘনিয়ে না আসে।

তবে ক্ষেত্র বিশেষে প্রয়োজনে সূর্যের অস্তগামী প্রথম অংশ দিগন্তরেখা অতিক্রম করার আগ মূহুর্ত পর্যন্ত নামাজ আদায় করে নেয়া যেতে পারে। সূর্যাস্তের সময় নামাজ পড়া নিষেধ।

আসরের নামাজের ফজিলত

আসরের নামাজের মাহাত্ম বা ফজিলত কতটুকু রয়েছে, সেটা সম্পর্কে নিচে থেকে জেনে নিতে পারবেন।

তোমাদের কেউ যদি সূর্যাস্তের আগে আসরের নামাজে এক সিজদা পায়, তাহলে সে যেন সালাত পূর্ণ করে নেয়। আর যদি সূর্যোদয়ের আগে ফজরের সালাতের এক সিজদা পায়, তাহলে সে যেন সালাত পূর্ণ করে নেয়। (বুখারি, হাদিস : ৫৫৬)

এছাড়াও আসরের নামাজ সম্পর্কে বিভিন্ন হাদিসের মধ্যে থেকে আরেকটি হাদীস নিচে তুলে ধরা হলো। যে হাদীসটি আপনার অনুপ্রেরণা যোগাবে।

আল্লাহ সেই ব্যক্তিদের ওপর রহম করুন, যারা আসরের সালাতের আগে চার রাকাত সুন্নত আদায় করে।’ (আবু দাউদ, হাদিস : ১২৭১; তিরমিজি, হাদিস : ৪৩০)

উপরে উল্লেখিত হাদিসেও আসরের নামাজের মাহাত্ম্য সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। ফজিলত এর দিক থেকে আসরের নামাজ অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটা নামাজ।